সাদক্বাতুল ফিতর  

সাদক্বায়ে ফিতর মুসলিমদের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত। রমাদানের শেষে ইদুল ফিতরের সালাতে যাবার আগে সাদক্বাতুল ফিতর আদায় করাকে আল্লাহ তা’আলা ওয়াজিব বা আপরিহার্য করেছেন। কেউ কেউ একে ফরজও বলেছেন। এই হুকুম শুধু তাদের জন্য প্রযোজ্য, যাদের মৌলিক প্রয়োজন মেটানোর পরেও নিসাব পরিমান সম্পদ অবশিষ্ট থাকে। নিম্নের হাদিস থেকে এই অপরিহার্যতার প্রমাণ পাওয়া যায়-

আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস রা. থেকে বর্ণিত, তিনি রমযানের শেষ দিকে বসরার মিম্বারের উপর খুতবা দানকালে বলেছেন, রাসূলুল্লাহ ﷺ সদকাতুল ফিতর অপরিহার্য করেছেন ‘এক সা’ খেজুর বা যব কিংবা ‘আধা সা’ গম; গোলাম-স্বাধীন, নারী-পুরুষ ও ছোট-বড় প্রত্যেকের উপর।[1]

সাদক্বায়ে ফিতর সম্পর্কিত হাদিসসমূহ নিয়ে পর্যালোচনা করলে জানা যায় যে, ৫ ধরণের খাদ্যবস্তু দিয়ে সাদক্বাতুল ফিতর আদায় করা যায়। এর মধ্যে যব, খেজুর, পনির ও কিসমিস দ্বারা সদকা ফিতর আদায় করতে চাইলে প্রত্যেকের জন্য এক ‘সা’ দিতে হবে। আর গম দ্বারা আদায় করতে চাইলে আধা ‘সা’ দিতে হবে।

খাদ্যবস্তুর পরিবর্তে সমমূল্যের টাকা দিয়ে সাদক্বায়ে ফিতর আদায় করলে তা আদায় হবে কিনা-এ নিয়ে মতভেদ রয়েছে। তবে শাইখুল ইসলাম ইবনে তাইমিয়া রহ. একটি সুন্দর সমাধান দিয়েছেন। তাঁর মতে,

খাদ্য দ্রব্য দিয়ে সাদক্বাতুল ফিতর আদায় করাই হলো মৌলিক নির্দেশ। তবে যদি কোন প্রয়োজন দেখা দেয়, অথবা টাকা দিলে ভালো মনে হয় তাহলে টাকা দিলেও আদায় হবে।

টাকা দেবার ক্ষেত্রে যে খাদ্যদ্রব্য দিয়ে আদায়ের ইচ্ছা করবে, সেই খাদ্যদ্রব্যের (এক ‘সা’ বা গম হলে আধা ‘সা’) বাজার মূল্যের সমান টাকা ফিতরা দিবে। এক্ষেত্রে খেয়াল রাখা জরুরী যে, যাদের আর্থিক অবস্থা ভালো, তাদের উচিত নয় সর্বদা কম মূল্যের খাদ্যবস্তু বা তার বাজার মূল্যের সমান টাকা দিয়ে ফিতরা আদায় করা! প্রত্যেকের আর্থিক সামর্থ্য অনুযায়ী উত্তম খাদ্যবস্তু বা তার বাজার মূল্যের সমান টাকা দিয়ে ফিতরা আদায় করা উচিত। যেখানে ইফতার পার্টি নামক অপসংস্কৃতি ও ঈদ মার্কেটের জন্য হাজার হাজার টাকা ব্যয় করা হয়, সেখানে এই সামান্য অর্থ দেওয়ায় কোনো অভিযোগ আসা যুক্তিযুক্ত নয়।

[1] সুনানে আবু দাউদ ১/২২৯। প্রখ্যাত হাদীস বিশারদ আল্লামা ইবনে আবদুল হাদী আল-হাম্বলী রাহ. বলেন, হাদীসটির সকল রাবী প্রসিদ্ধ ও নির্ভরযোগ্য। আল্লামা যাহাবী রাহ. বলেছেন, হাদীসটির সনদ শক্তিশালী।

Updated: June 1, 2019 — 5:38 am

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *